মিষ্টিজাতীয় পানীয় ডায়াবেটিসের ঝুঁকি বাড়ায়

ডায়াবেটিস এমন একটি শারীরিক অবস্থা, যা আজীবন বয়ে বেড়াতে হয়। বিশ্বে এর কারণে প্রতি বছর ১০ লাখের বেশি মানুষের মৃত্যু হয়। শরীর যখন রক্তের সব চিনিকে (গ্লুকোজ) ভাঙতে ব্যর্থ হয়, তখনই ডায়াবেটিস হয়। এ জটিলতার কারণে মানুষের হার্ট অ্যাটাক, স্ট্রোক হতে পারে। এছাড়া ডায়াবেটিসের কারণে মানুষ অন্ধ হয়ে যেতে পারে, নষ্ট হতে পারে কিডনি। শারীরিক পরিশ্রম, ব্যায়াম ও খাদ্যাভ্যাসে পরিবর্তন এনে ভয়াবহ এ রোগ থেকে আপনি মুক্ত থাকতে পারেন। শুধু আপনি পানীয় পানে সাবধানতা অবলম্বন করে টাইপ ২ ডায়াবেটিসের ঝুঁকি কমাতে পারেন।

সম্প্রতি হার্ভার্ড টিএইচ চ্যান স্কুল অব পাবলিক হেলথের গবেষণা প্রতিবেদন বলছে, যেসব মানুষ ক্রমবর্ধমান হারে সোডা, ফলের জুসসহ মিষ্টি পানি পান করে, তারা টাইপ ২ ডায়াবেটিসের উচ্চতর ঝুঁকিতে রয়েছে।

২৬ বছর ধরে ১ লাখ ৯২ হাজার অংশগ্রহণকারীর ওপর গবেষণাটি পরিচালনা করা হয়। চার বছর পরপর অংশগ্রহণকারীদের মধ্যে চিনিযুক্ত পানীয় পানের বিষয়টি গবেষকরা সন্ধান করেন। গবেষকরা বলছেন, যেসব মানুষ চিনি-মিষ্টিযুক্ত পানীয় এবং ১০০ শতাংশ ফলের রস পান করেছিল, তাদের মধ্যে টাইপ ২ ডায়াবেটিসের ঝুঁকি ১৬ শতাংশ বেশি ছিল।

অধিকাংশ মানুষ জানেই না তারা যেসব পানীয় পান করছে, সেগুলোতে কী পরিমাণ চিনি রয়েছে। স্বাস্থ্য বিশেষজ্ঞ আলেক্সিস এলিয়ট বলেন, আমি একটা বিষয় কিছুতেই বুঝতে পারি না, মানুষ কেন সরাসরি ফল খাওয়ার পরিবর্তে জুস ও পানীয়কে বেছে চিনি গ্রহণ করে। আসলে মানুষ জানেই না এক টুকরো সোডায় কী পরিমাণ চিনি থাকে এবং এগুলো শরীরের জন্য ভালো নয়।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *